আজ : ০৩:১৪, নভেম্বর ২৬ , ২০২০, ১২ অগ্রহায়ণ, ১৪২৭
শিরোনাম :

বহিরাগতদের জন্য এমসি কলেজের অতীত ঐতিহ্য কলুষিত হচ্ছে


এমসি কলেজ `৯১ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের ভার্চুয়াল সভায় বক্তারা

আপডেট:১১:২৯, অক্টোবর ১০ , ২০২০
photo

লন্ডনবিডিনিউজ২৪ : ব্রিটেনে অবস্থিত এমসি কলেজের এইচএসসি ’৯১ ব্যাচের শিক্ষার্থীদের উদ্যোগে সম্প্রতি এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ঘটে যাওয়া ন্যক্কারজনক গণধর্ষণের প্রতিবাদে এক ভার্চুয়াল সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে বাংলাদেশ, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, নেদারল্যান্ডে বসবাসরত এই ব্যাচের শিক্ষার্থীরা অংশ নেন। সভায় বক্তারা বলেন, বহিরাগতদের জন্য এম সি কলেজের অতীত ঐতিহ্য আজ কলুষিত হচ্ছে।

কাজী সাইফুর রহমানের শাফিনের উপস্থাপনায় প্রায় দুই ঘন্টাব্যাপী সভায় বক্তব্য রাখেন আব্দুল বাছিত বাদশা, আব্দুল আহাদ, রেদওয়ান আহমদ সোহেল, প্রবীর রায়, আমীন খান, আব্দুল খালিক লিটন, মৌলানা ওবাইদুল হক, আতিক রহমান, আব্দুল হান্নান, কাজী ফয়জুল ইসলাম পারভেজ, আব্দুল কুদ্দুছ খান, আব্দুল বাছেত চৌধুরী মাসুম, মো: মোক্তার আহমদ , জুবের আক্তার সোহেল, মো: মামুনুর রহমান, মো: রাজিক মিয়া। সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন মো: কামরুল হক, জালাল উদ্দিন, সৈয়দ ফয়সল আহমদ, আবু জুবের মুন্না এবং সাকির আহমদ শাহীন।

সভায় বক্তারা এই জঘন্যতম ঘটনায় তীব্র নিন্দা, ঘৃণা, লজ্জা ও ক্ষোভ প্রকাশ করেন এবং সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে ঘটনার সাথে প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেন। বক্তারা বলেন এ ধরণের নৃশংস, পৈশাচিক এবং পাশবিক ঘটনার সাথে অবশ্যই অতীতের ছোট ছোট ঘটনা এবং সেগুলির বিচার না হওয়ার বিষয়টি নিয়ামক হিসাবে কাজ করেছে। তাঁরা তাঁদের ছাত্রত্বকালীন ক্যাম্পাসে রাজনীতির সহাবস্থানের কথা উল্লেখ করে বলেন তখনও বিভিন্ন রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের মধ্যে দ্বন্দ্ব সংঘাতের ঘটনা ঘটেছে কিন্তু তা কখনোই এমন নিকৃষ্ট পর্যায়ে যায়নি। এর পেছনে তাঁরা পারিবারিক শিক্ষার ঘাটতি, মানবিক মূল্যবোধের অবক্ষয়, রাজনৈতিক শিষ্টাচার বহির্ভূত অপসংস্কৃতি, দলীয় কোন্দল, রাজনীতিতে পেশি শক্তির উত্থান, দখলদারিত্বের মনোভাব, প্রশাসনিক উদ্যোগ গ্রহণের অভাবকে দায়ী হিসেবে চিহ্নিত করেন। তাঁরা বলেন ক্যাম্পাসের রাজনৈতিক সংঘাত তৎকালে কখনোই ছাত্রাবাসে শিক্ষার পরিবেশ বিঘ্নিত করেনি, ছাত্রাবাস ছিল সিনিয়র জুনিয়র সমন্বয়ে পারিবারিক শ্রদ্ধাবোধের আদলে পরিচালিত একটি নিরাপদ অধ্যয়নের জায়গা। বর্তমানে বহিরাগতদের জন্য এমসি কলেজের অতীত ঐতিহ্য কলুষিত হচ্ছে।

উদাহরণস্বরূপ তাঁরা বলেন ১৯৯৭ সালে দুজন আবাসিক ছাত্রকে ঘুম থেকে উঠিয়ে নির্মম নির্যাতন ও ২০১২ সালে ছাত্রাবাস পোঁড়ানোর ঘটনার সুষ্ঠু বিচার হলে হয়তো দুষ্কৃতিকারীরা পরবর্তী ঘটনা ঘটানোর সাহস পেতনা। এই কলংকজনক ঘটনায় কলেজের সুদীর্ঘ ১২৮ বছরের ইতিহাসে যে কালিমা লেপন হয়েছে তা কখনোই মুছবেনা ও ভিক্টিমের যে স্থায়ী ক্ষতি হয়েছে তা অপূরনীয়। এ ধরণের ঘটনার পুনরাবৃত্তি যাতে না হয় সেজন্য এর দৃষ্টান্তমূলক সর্বোচ্চ শাস্তি দাবীসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক, এলাকাভিত্তিক সামাজিক সংগঠন, প্রশাসনিক তৎপরতা বৃদ্ধি ও অভিভাবকদের আন্তরিক প্রচেষ্টা কামনা করা হয়T যাতে তাঁদের প্রাণের স্পন্দন ও অনুভূতির তীর্থক্ষেত্র এমসি কলেজ আর কলংকিত না হয়, পাশাপাশি কলেজে শিক্ষার সুষ্ঠু পরিবেশ বজায় রাখা এবং ছাত্রাবাসে প্রকৃত মেধার ভিত্তিতে সীট বরাদ্দ করে সেটিকে অধ্যয়নের নিরাপদ স্থানে পুনর্বহালের দাবী জানানো হয়। বর্তমান উন্নত প্রযুক্তির যুগে ক্যাম্পাস ও ছাত্রাবাসকে নিরাপদ করতে পর্যাপ্ত আলোর ব্যবস্থা করা, সিসিটিভির আওতাভূক্ত করা এবং প্রয়োজনীয় সংখ্যক নিরাপত্তা বেষ্টনী ও লোকবল নিয়োগের উপর গুরুত্বারোপ করা হয়। তাঁরা বলেন প্রয়োজনে সরকারি আর্থিক সহায়তা অপ্রতুল হলে এবং কলেজ প্রশাসনের অনুমতি সাপেক্ষে প্রিয় ক্যাম্পাসের সুনামকে ধরে রাখার জন্য যে কোন উদ্যোগে ৯১ ব্যাচের অংশগ্রহণ থাকবে। পরিশেষে পুনরায় এমন লোমহর্ষক ঘটনায় তাঁরা অত্যন্ত ব্যথিত ও মর্মাহত জানিয়ে বলেন এ ঘটনায় জড়িত প্রকৃত সকল দোষীকে বিচারের আওতায় এনে সুবিচারের দৃষ্টান্ত যেন স্থাপিত হয় এবং কলেজের শিক্ষার গুনগত উৎকর্ষতা বৃদ্ধিতে সকল প্রকারের বাহিরের অশুভ হস্তক্ষেপ রোধে সর্বমহলের সচেতনতা কামনা করেন। অভিযুক্তদের দ্রুত গ্রেফতার করায় সর্বস্তরের আইন শৃঙ্খলাবাহিনীকে ধন্যবাদ জানানো হয়। পরিশেষে সকলকে ধন্যবাদ জানিয়ে সভার কাজ সমাপ্ত হয়।



সাম্প্রতিক খবর

"অনলাইন টিভি ক্লাব ইউকে"নামক নতুন সংগঠণের যাত্রা শুরু

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ : বিলেতে বাংলাদেশী কর্তৃক অনলাইন গণমাধ্যমকে সময়ের চাহিদা পুরণে স্বার্থক ও সফল করে তুলতে গঠিত হয়েছে "অনলাইন টিভি ক্লাব ইউকে"। গত শনিবার বিকেলে অনলাইন গণমাধ্যমের পরিচালক ও সাংবাদিকদের নিয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এতে অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ ড. হাসানাত এম হোসাইন এমবিই, বিশিষ্ট সাংবাদিক-কলামিস্ট কেএম আবু তাহের চৌধুরী এবং চ্যানেল

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment