আজ : ০১:০৩, নভেম্বর ১৬ , ২০১৯, ১ অগ্রহায়ণ, ১৪২৬
শিরোনাম :

গণফোরাম এর নির্বাহী প্রেসিডেন্ট হলেন মোকাব্বির খান এমপি


আপডেট:১০:২১, অক্টোবর ৩০ , ২০১৯
photo

লন্ডনবিডিনিউজ২৪ : বাংলাদেশের জাতীয় সংসদের সিলেট ২ (ওসমানী নগর – বিশ্বনাথ) আসনের সংসদ সদস্য, যুক্তরাজ্য প্রবাসী বিশিষ্ট রাজনীতিক ও কমিউনিটি নেতা মোকাব্বির খানকে গণফোরাম এর নির্বাহী সভাপতি হিসেবে মনোনীত করা হয়েছে। দলের সভাপতি ডক্টর কামাল হোসেন গত ২০ অক্টোবর জনাব খানকে দলের নির্বাহী সভাপতি হিসেবে মনোনীত করেন এবং গণফোরামের উদ্দেশ্য ও আদর্শ সমূহকে বাস্তবায়নে জনাব মোকাব্বির খান সর্বদা সচেষ্ট থাকবেন বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

দলীয় প্রধান ড. কামাল হোসেনের স্বাক্ষরিত চিঠিটি মোকাবিধ্বর খান এমপিকে আনুষ্ঠানিকভাবে হস্তান্তর করেন দলের সাধারণ সম্পাদক ড. রেজা কিবরিয়া।

উল্লেখ্য, জনাব মোকাব্বির খান গণফোরামের প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকে গত ২৭ বছর দলের লক্ষ্য উদ্দেশ্য ও আদর্শ বাস্তবায়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছেন। তিনি বিগত বহু বছর ধরে গণফোরাম এর কেন্দ্রীয় প্রেসিডিয়ামের সদস্য হিসেবে দলের নীতি নির্ধারণী বিষয়ে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখে আসছেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে মাত্র ৩/৪ দিনের প্রচারণায় দলীয় প্রতীক "উদীয়মান সূর্য' নিয়ে বিপুল ভোটে নির্বাচিত হয়ে দেশে বিদেশে আলোড়ন সৃষ্টি করেন। পরবর্তীতে সংসদে যোগদানের পরমূহুর্ত থেকে গণমানুষের পক্ষে সংসদে জাতীয় ইস্যূ নিয়ে বক্তব্য রেখে আসছেন। জাতীয় সংসদে নিজেকে জনগণের ভোটে নির্বাচিত বিরোধী দলীয় সদস্য হিসেবে তুলে ধরে জনগনের দাবিদাওয়া উপস্থাপন করে আসছেন তিনি। জনগণের ভোটে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়ে শতভাগ সততার সাথে মানুষের কল্যানে কাজ করা যায় – এটা তিনি গত এক বছরে তার নির্বাচনী এলাকার মানুষের কাছে প্রমাণ করতে পেরেছেন বলে তাঁর সংসদীয় আসনের বাসিন্দারা এখন মুক্তকন্ঠে বলে থাকেন।

গণফোরাম এর নির্বাহী সভাপতি হিসেবে দায়িত্বপ্রাপ্তির পর এক প্রতিক্রিয়ায় জনাব মোকাব্বির খান এমপি বলেন, আজ জাতির অভিভাবক, ডক্টর কামাল হোসেন আমার ওপর যে দায়িত্ব অর্পন করলেন, তা যথাযথভাবে পালনে আমি সদা সচেষ্ট থাকবো। তার নেতৃত্বে আমরা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা প্রতিষ্ঠা করবো ইনশা আল্লাহ। তিনি বলেন, ২৭ বছর ধরে আমি পৃথিবীর সেরা আইনবিদদের একজন ডক্টর কামাল হোসেনের স্নেহধন্য হয়ে মানুষের জন্য কাজ করছি। তাঁর সততা, ন্যায়নিষ্টতা, সত্য উচ্চচারণে তাঁর দৃঢ়তা, মানুষের ঐক্যের ওপর তার অগাধ বিশ্বাস, আমাকে প্রতি নিয়ত অনুপ্রাণিত করে। আজ তিনি আমার ওপর যে আস্থা ও বিশ্বাস স্থাপন করে নির্বাহী সভাপতি হিসেবে আমার কাধেঁ যে দায়িত্ব অর্পন করেছেন, আমি তাঁর সেই আস্থা ও বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে সর্বাবস্থায় সচেষ্ট থাকবো।

এদিকে ব্যক্তিগত সফরে ২৭ অক্টোবর যুক্তরাজ্য সফরের আসার প্রাক্কালে গণফোরামের নবনিযুক্ত নির্বাহী সভাপতি জনাব মোকাব্বির খান এমপি দলের সভাপতি ডক্টর কামাল হোসেনের সাথে তাঁর অফিসে সাক্ষাত করেন এবং তাঁকে নির্বাহী সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব প্রদান করায় তাঁর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এসময় 'সংসদে ও সংসদের বাইরে গণমানুষের পক্ষে এবং দলের নীতি ও আদর্শের কথা তুলে ধরার ক্ষেত্রে, দূর্নীতি ও অপরাজনীতির বিরুদ্ধে এককভাবে মোকাব্বির খান এমপির সোচ্চচার ভূমিকার' প্রশংসা করে ডক্টর কামাল হোসেন বলেন, ২৭ বছর ধরে আপনি আমাদের সাথে দেশের জন্য, জনগণের জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। জনগণকে ঐক্যবদ্ধ করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় ন্যায়ভিত্তিক রাষ্ট্র গঠনে আপনার অবদানের বড় সাক্ষী হচ্ছি আমি। তাই, আজ গণফোরাম এর কেন্দ্রীয় নির্বাহী সভাপতি হিসেবে আপনাকে মনোনীত করতে পেরে আমি আনন্দিত।

ডক্টর কামাল হোসেন বলেন, গণফোরাম এর ভবিষ্যত এখন আপনাদের হাতে। সততার প্রশ্নে আপনি (মোকাব্বির খান) অতীতে যেমন বিন্দুমাত্র বিচ্যূত হননি, ভবিষ্যতেও আপনার এই ভাবমূর্তিতে বিন্দুমাত্র কালিমা লাগতে দেবেননা বলেই আমার বিশ্বাস। এমপি হয়েও যে সততার সাথে মানুষের কল্যানে নিজেকে উৎসর্গ করা যায়, মোকাব্বির খান এমপি তার উজ্জলতম দৃষ্টান্ত হবেন বলে ডক্টর কামাল হোসেন আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

উল্লেখ্য, দুই সপ্তাহের এক সংক্ষিপ্ত ব্যক্তিগত সফরে গণফোরাম এর নির্বাহী সভাপতি জনাব মোকাবিধ্বর খান এমপি বর্তমানে যুক্তরাজ্যে অবস্থান করছেন।



সাম্প্রতিক খবর

বৃটিশ সাইন্স মিউজিয়ামে বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত শায়মা জামানের এক্সিবিশন

photo স্পেশাল রিপোর্টারঃ লন্ডনের বৃটিশ সাইন্স মিউজিয়ামের উদ্যোগে ' ডিফরেন্স বিলিভ এন্ড ডিফরেন্স রিলিজন ' শীর্ষক আন্তর্জাতিক মানের এক প্রতিযোগিতায় একমাত্র বাংলাদেশী বংশোদ্ভুত বৃটিশ মেয়ে শায়মা জামান উত্তীর্ণ হয়েছেন। প্রায় তিন বছর নানা বাছাই পর্বের পর এই ঘোষণা দেয়া হয়। ছয়টি ক্যাটাগিরিতে এই প্রজেক্টের আওতায় রয়েছে ধর্ম, বিশ্বাস ও সফলতা। শায়মা জামানের বিষয় ছিল, ইসলাম,

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment