আজ : ১১:২২, নভেম্বর ১৪ , ২০১৯, ৩০ কার্তিক, ১৪২৬
শিরোনাম :

ট্রেনে মাত্র ৪ ঘণ্টায় ঢাকা থেকে সিলেট!


আপডেট:১২:০৪, এপ্রিল ৯ , ২০১৯
photo

সিলেট সংবাদদাতা: আখাউড়া থেকে সিলেট পর্যন্ত জরাজীর্ণ রেলপথকে ডুয়েলগেজ (ডাবল লাইন) করা হচ্ছে। প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ঢাকা থেকে সিলেট যাওয়া যাবে মাত্র চার ঘন্টায়। আর চট্টগ্রাম থেকে সিলেটের রেল যাত্রার সময় কমবে আড়াই ঘণ্টা।

মঙ্গলবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি-একনেক সভায় আখাউড়া-সিলেট ডুয়েলগেজ রেলপথ সংক্রান্ত একটি প্রকল্প অনুমোদন দেয়া হয়।

১৬ হাজার কোটি টাকার এ প্রকল্পে মূল অর্থায়ন দেবে চীন। ‌একনেক সভায় এটি ছাড়া আরও ৬টি প্রকল্প অনুমোদন পায়।

পরিকল্পনা কমিশন জানায়, আখাউড়া থেকে সিলেট পর্যন্ত রেললাইন জরাজীর্ণ হয়ে পড়েছে। তার ওপর আঁকাবাঁকা ট্র্যা ক ও পরিচালন জটিলতায় কারণে এ রুটে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৫০ কিলোমিটারে বেশি গতিতে ট্রেন চলতে পারে না।

আর ডুয়েলগেজের কাজ শেষ হলে এ রুটে রেলের গতিবেগ হবে ঘণ্টায় ১২০ কিলোমিটার। ফলে ঢাকা থেকে সিলেট এবং চট্টগ্রাম থেকে সিলেট পৌঁছানোর সময় আড়াই ঘণ্টা কমে যাবে। রেল যোগাযোগের সুযোগ তৈরি হবে আসামের সঙ্গেও।

প্রকল্পের অধীনে ২২৫ কিলোমিটার মিটার গেজ রেলপথকে সম্প্রসারণ করে ২৩৯ কিলোমিটার ডুয়েলগেজে রুপান্তর করা হবে।

একনেক সভা শেষে প্রকল্পগুলো নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান।

পরিকল্পনামন্ত্রী জানান, আজকের সভায় ৭টি প্রকল্প অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। এতে মোট ব্যয় হবে ১৮ হাজার ১৯১ কোটি ৩৮ লাখ টাকা। এর মধ্যে ৬ হাজার ৬২২ কোটি ৪৩ লাখ টাকা সরকারি অর্থায়নে করা ব্যয় করা হবে। আর প্রকল্প সাহায্য থেকে আসবে ১১ হাজার ৫৬৮ কোটি ৯৫ কোটি টাকা।

এ সময় সাধারণ অর্থনৈতিক বিভাগের সদস্য ড. শামসুল ইসলামসহ পরিকল্পনা কমিশনের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।



সাম্প্রতিক খবর

বৃটেনে সাধারণ নির্বাচন ১২ ডিসেম্বর: ভোটার তালিকায় নাম নিবন্ধনের শেষ তারিখ ২৬ নভেম্বর

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ : আগামী ১২ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় নির্বাচনে স্থানিয় দুম্বটি সংসদীয় আসনের নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করতে টাওয়ার হ্যামলেটস কাউন্সিল সব ধরনের প্রস্তুতি গ্রহণ শুরু করেছে। পপলার এন্ড লাইমহাউজ এবং বেথনাল গ্রীণ এন্ড বো সংসদীয় আসনের নির্বাচনে ভোটাধিকার প্রয়োগ করতে হলে নিজের নাম ভোটার তালিকায় নিবন্ধিত আছে কি-না তা নিশ্চিত করতে বারার বাসিন্দাদের প্রতি

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment