আজ : ০১:০৪, মে ২৬ , ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭
শিরোনাম :

কান্নায় ভেঙে পড়লেন তাসকিন


আপডেট:০১:৪৮, এপ্রিল ১৬ , ২০১৯
photo

খেলাধুলা ডেস্ক: ২০১১ সালে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের আয়োজক হয়েছিল বাংলাদেশ। সেবার ইনজুরির কারণে শেষ মুহূর্তে দল থেকে ছিটকে পড়েছিলেন মাশরাফি বিন মুর্তজা। ঘরের মাঠে ক্রিকেটের সর্বোচ্চ আসরে খেলার না খেলার মতো দুর্ভাগ্য আর কি হতে পারে। কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন মাশরাফি। চলতি বছর ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে বসছে বিশ্বকাপের দ্বাদশ আসর। মঙ্গলবার টাইগারদের বিশ্বকাপ স্কোয়াড ঘোষণা কার হয়েছে। আট বছর পর মিরপুরে দেখা গেলো প্রায় একই রকম চিত্র। মাশরাফি নয়, এবার চোখে জল তাসকিন আহমেদের। এবারের বিশ্বকাপ স্কোয়াড থেকে বাদ পড়ার পর চোখের পানি আর ধরে রাখতে পারেননি।

হোম অব ক্রিকেটে সাংবাদিকরা যখন তাসকিনের সঙ্গে কথা বলতে চাইলেন তখন নয়ন ভরা অশ্রু নিয়ে তাসকিন বলছিলেন, না ঠিকাছে, সবাই তো ভালই চায়, খারাপ চায় না কেউ। সামনে আরও সুযোগ আছে। আমি আমারে চেষ্টা চালিয়ে যাবো। ভালো করে খেলার চেষ্টা করব। এসময় সবার কাছে ধন্যবাদ জানিয়ে সবার কাছে দোয়া চেয়ে ভিতরে চলে যান ২৪ বছর বয়সী এই বোলার।

এদিকে স্কোয়াড ঘোষণার সময় তাসকিনকে না রাখার প্রসঙ্গে কথা বলেছিলেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু। তিনি বলেন, আমরা তাকে নিয়ে অনেক দিন থেকেই চিন্তা করছি। সে কিন্তু ২০১৭ সালের ২২ অক্টোবর সর্বশেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশের হয়ে। ওটার পরে কিন্তু আমরা যখন ওকে নিউজিল্যান্ড সফরের জন্য চিন্তা ভাবনা করেছিলাম তখন আবার ইনজুরিতে পড়ে গিয়েছে। এখন পর্যন্ত সে পুরোপুরি ফিট না। সেই হিসেবে আমরা তাকে স্কিল ফিট হিসেবে চাচ্ছি না। সে ঘরোয়া লিগে একটি ম্যাচে খেলেছে স্কিল ফিট হিসেবে। কিন্তু তার ফিটনেস শতভাগ নয়।

যদিও আশার আলো একেবারেই নিভে যায়নি তাসকিনের জন্য সে বিষয়টি জানানো হয়েছে। নান্নু বলেন, তবে এখনও সময় আছে। আয়ারল্যান্ড সফরে আমাদের ১৭ জন সদস্য যাচ্ছে। এর মধ্যে ও যদি পুরো ফিট হয়ে যায় এবং দরকার হয় তাহলে ওকে আমরা ব্যাকআপ হিসেবে রাখবো।



সাম্প্রতিক খবর

দিরাইয়ে শহীদ চৌধুরী ফাউন্ডেশনের ঈদ উপহার বিতরণ

photo লন্ডনবিডিনিউজ২৪ : ২৩মে ২০২০ শনিবার দিরাই উপজেলার তাডল ইউনিয়নের মরহুম শহীদ চৌধুরী ফানডেশনের উদ্যোগে তাডল,রামপুর,জালালপুর সহ কয়েক গ্রামের মহামারী করোনা ভাইরাসের কারনে কর্মহীন প্রায় তিন শতাদিক মানুষের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরন করা হয়। ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ও মরহুম আব্দুস আব্দুস শহীদ চৌধুরীর ছোট ভাই আকলাকুর রহমান চৌধুরী,আফরোজ মিয়া চৌধুরী উপস্হিত থেকে উপহার সামগ্রি বিতরন করেন।

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment