আজ : ০৫:৪৮, জুন ৪ , ২০২০, ২১ জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৭
শিরোনাম :

অভিনেত্রী তাজিনের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ


আপডেট:০৯:৫৩, মে ২২ , ২০১৯
photo

বিনোদন ডেস্ক: ছোটপর্দার নন্দিত অভিনেত্রী তাজিন আহমেদের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। ২০১৮ সালের ২২ মে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান তিনি।

১৯৭৫ সালের ৩০ জুলাই নোয়াখালী জেলায় জন্ম তার। তবে তাজিনের শৈশব-কৈশোর কেটেছে পাবনায়। ১৯৯৬ সালে বিটিভিতে প্রচারিত ‘শেষ দেখা শেষ নয়’ নাটকের মধ্য দিয়ে অভিনয়যাত্রা শুরু করেন।

এর আগে ১৯৯১ সালে বিটিভির ‘চেতনা’ অনুষ্ঠানের মাধ্যমে উপস্থাপনা শুরু করেন তাজিন। কিন্তু টিভি নাটকই তাকে সর্বাধিক জনপ্রিয়তা ও প্রশংসা এনে দেয়। তার অভিনীত বিটিভির ‘আঁধারে ধবল দৃপ্তি’ বেশ প্রশংসিত হয়।

তাজিন ১৯৯৭ সালে ‘থিয়েটার আরামবাগ’ দিয়ে মঞ্চনাটক শুরু করেন। এরপর ‘নাট্যজন’ থিয়েটারের হয়ে বেশ কিছু নাটকে অভিনয় করেন। পরবর্তী সময়ে আরণ্যক নাট্যদলের ‘ময়ূর সিংহাসন’ নাটকে অভিনয় করেছিলেন দীর্ঘ সময় ধরে। তার সর্বশেষ অভিনীত মঞ্চনাটক ছিলো এটি।

এছাড়া হুমায়ূন আহমেদের নাটক ‘নীলচুড়ি’তে অভিনয় করেও বেশ আলোচিত হন তিনি। তার সর্বশেষ অভিনীত ধারাবাহিক নাটক ‘বিদেশি পাড়া’।

অভিনয়ের বাইরে লেখালেখির কাজেও যুক্ত ছিলেন তাজিন। লিখেছেন একাধিক নাটক। উপস্থাপনায়ও ছিলেন বেশ দাপুটে।

তাজিন আহমেদ পড়াশোনা করেছেন ঢাকা ইডেন মহিলা কলেজে। ম্যানেজমেন্টে স্নাতকোত্তর করেছেন এই অভিনেত্রী। নাট্যাঙ্গনে কাজ করার পাশাপাশি বেশ কয়েক বছর সাংবাদিকতায় যুক্ত ছিলেন। দৈনিক ভোরের কাগজ ও দৈনিক প্রথম আলো পত্রিকায় সাংবাদিক হিসেবে কাজ করেছিলেন।

ব্যক্তিজীবনে তিনি প্রথমে ঘর বেঁধেছিলেন নির্মাতা এজাজ মুন্নার সঙ্গে। কয়েক বছরের ব্যবধানে তাদের বিচ্ছেদ হয়। এরপর বিয়ে করেছিলেন ড্রামার রুমি রহমানকে।

এদিকে, তাজিন আহমেদকে স্মরণ করে স্মৃতিকাতর হয়েছেন তার সমসাময়িক অভিনেত্রী-অভিনেতারা।



সাম্প্রতিক খবর

প্রবাসী বাংলাদেশীদের নিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর বক্তব্যের প্রতিবাদ ও নিন্দা : প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি প্রদানের সিদ্ধান্ত

লন্ডনবিড়িনিউজ২৪ঃবিশেষ প্রতিনিধি: গত ৩১শে মে রবিবার ভারচুয়াল মিডিয়া ঝুমের মাধ্যমে লণ্ডনে অনুষ্ঠিত সুশীল সমাজের নেতৃবৃন্দের এক জরুরী প্রতিবাদ সভায় সম্প্রতি প্রবাসী বাংলাদেশী সম্পর্কে বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রীর অশালীন মন্তব্য করার তীব্র প্রতিবাদ ও নিন্দা জানানো হয় ।সভায় বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রী বরাবরে একটি প্রতিবাদ লিপি প্রেরণের সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। বিশিষ্ট

বিস্তারিত

0 Comments

Add new comment